সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯:০২ অপরাহ্ন

পদুয়া বাজারে মাছ ব্যবসায়ীদের মাছ বিক্রয়ে বাঁধা প্রদানের অভিযোগ

লোহাগাড়া প্রতিনিধি :

চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার ঐতিহ্যবাহী পদুয়া তেওয়ারীহাটের কাঁচা বাজারে মাছ ব্যবসায়ীদের মাছ বিক্রয়ে বাঁধা দিচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় কয়েকজন ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে।
এ বিষয়ে ৬ নভেম্বর ও ৮ নভেম্বর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন বাজারের ইজারাদার মুহাম্মদ আলমগীর।
লিখিত বক্তব্যে তিনি জানান, বিগত বেশ কিছুদিন ধরে পদুয়া তেওয়ারীহাটের কয়েকজন ব্যবসায়ী ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে বাজার বেদখলের উদ্যেশ্যে বিভিন্ন পায়তারা করে আসছে। বিশেষ করে পদুয়া বাজারের মাছ বাজার সংলগ্ন আর সি. সি. ঢালাইকৃত মাছ বাজারের জায়গা এবং বাজারের সরকারি নালা ভরাট করে নিজেদের কাজে ব্যবহার করে আসছে। বর্তমানে বাজারের সরকারি নালা সম্পূর্ণরুপে ভরাট করার কারণে উল্লেখিত ব্যক্তিদের বাসা এবং দোকানের পানি চলাচল ব্যঘাত হওয়ার অজুহাতে সরকারি খরছে নির্মিত আর.সি.সি ঢালাইকৃত মাছ বাজারের জায়গা খনন করে পাইপ স্থাপনের উদ্যোগ গ্রহণ করে। ইজারাদার হিসেবে তাদেরকে এমন অবৈধ কাজে বাঁধা দিতে গেলে উক্ত বাধাঁ উপেক্ষা করে আইনের তোয়াক্কা না করে পাইপ স্থাপনের কাজ অব্যাহত রাখে। উক্ত সময় তাদের সাথে বড় ধরনের সংঘাতের আশাংকায় আপনার দপ্তরে অবহিত করি।
অভিযোগের পর থানা পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে কাজ বন্ধ করলেও পরক্ষনে ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে পুনরায় কাজ শুরু করে দেয় তারা। এরপর ইজারাদার গং তাদের বাঁধা প্রদান করলে বর্তমানে কাজ বন্ধ রাখলেও সংঘবদ্ধ ভাবে দলবল নিয়ে সন্ত্রাসী কায়দায় পাইপ স্থাপনা করার পরিকল্পনা করে যাচ্ছে এবং মাছ ব্যবসায়ীদের ভয়-ভীতি ও হুমকি দিয়ে যাচ্ছে।
মাছ বিক্রেতা বাবলা জলদাশ জানান, মাছ বাজারের পাশ্ববর্তী বিল্ডিং থেকে ময়লা পানি গড়িয়ে পড়ে মাছ বাজারে আসা ক্রেতা- বিক্রেতাদের কাজে বিঘ্ন ঘটছে। এসব পানির কারণে মাছ ব্যবসায়ীদের গালি দিচ্ছে বাজারে আসা ক্রেতারা। তিনি আরো জানান, পাশ্ববর্তী ব্যবসায়ীরা তাদের মাছ বাজারে বসে মাছ বিক্রি করতে দিচ্ছেনা। মাছ নিয়ে বসলে তাদেরকে উঠিয়ে দেয়।
খোকন জলদাশ নামে এক মাছ ব্যবসায়ী জানান, আমাদের মাছ বিক্রয়ে বাঁধা দেওয়ায় প্রতিদিন মাছ গুলো নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। গুনতে হচ্ছে ব্যবসায় লোকসান। মাছ ব্যবসায়ীদের রক্ষা করতে উপজেলা প্রশাসনের কাছে জোর দাবী জানান তিনি।
অভিযুক্তদের পক্ষে নুরুল আবছার জানান, আমরা মাছ ব্যবসায়ী কাউকে হুমকি প্রদান করিনাই। আমাদের দোকানের সামনে রাস্তার উপর মাছ ব্যবসায়ীরা বসে মাছ বিক্রি করে যাচ্ছে। এতে আমাদের দোকানে ক্রেতাদের আসতে সমস্যা হচ্ছে। ইউএনও মহোদয় এসে যেটা সিদ্ধান্ত দেয় সেটা আমরা মেনে নেবো।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শরীফ উল্যাহ জানান, একটা লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। সরজমিনে পরিদর্শন করে যথাযথ আইনগত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন :

ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত